করোনার মধ্যে ভারত-চীন সংঘর্ষে উদ্বিগ্ন জাতিসংঘ দুইপক্ষেই বড় প্রাণহানি

প্রেরণা ডেস্কঃ
ভয়াবগ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সারা বিশ্ব তখন ভারত-চীন সীমান্তের লাদাখের গালওয়ান ভ্যালিতে সংঘর্ষের জেরে উভয়পক্ষের বেশ কয়েকজন সেনা নিহত হয়েছে। এই সংঘর্ষের ঘটনায় জাতিসংঘ উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।
জাতিসংঘ মহাসচিবের দপ্তর থেকে ভারত-চীন সংঘর্ষের ঘটনায় এই উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে। ইন্দো-চীন সীমান্তের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় সংঘর্ষ ও মৃত্যুর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে ভারত ও চীন দু’দেশকেই সংযত থাকার জন্য অনুরোধ জানায় জাতিসংঘ।
তবে সীমান্তে উত্তেজনা কমানোর উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, দু’দেশই উত্তেজনা কমাতে উদ্যোগী হয়েছে। এই প্রচেষ্টা সন্তোষজনক।
চীনের সঙ্গে সংঘর্ষের জেরে ভারতের হিমাচল প্রদেশে জারি করা হয়েছ হাই অ্যালার্ট। চীনা সীমান্ত লাগোয়া কিন্নৌর, লাহুল-স্পিতিতে সতর্কতা জারি করেছে প্রশাসন। হিমাচল পুলিশের মুখপাত্র খুশল শর্মা জানিয়েছেন, সীমান্তবর্তী এলাকার বাসিন্দাদের সুরক্ষায় সবরকম সতর্কতামূলক পদক্ষেপ করা হচ্ছে। পাশাপাশি ভবিষ্যতের জন্য তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে।
এদিকে ভারতের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিও এ ইস্যুতে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। লাদাখে ইন্দো-চীন সংঘর্ষের জেরে ট্যুইটে ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করেছেন মহুয়া মৈত্র। তৃণমূল ওই সাংসদ লিখেছেন, অবিশ্বাস্য। সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের ডঙ্কা বাজিয়ে ২০১৯-এ জিতেছিল বিজেপি। অথচ এর কোনও প্রমাণ নেই। এখন ২০ জন মৃত সৈনিক আমাদের দিকে তাকিয়ে আছে। প্রধানমন্ত্রী নিশ্চুপ।
ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই দাবি করেছে, লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষে চীনের সেনাবাহিনীর নিহত ও গুরুতর আহত জওয়ানের সংখ্যা ৪৩।

আরও পড়ুন

Leave a Comment